স্কলারশিপ পাওয়ার যোগ্যতা - Studenttimesbd

স্কলারশিপ পাওয়ার যোগ্যতা

স্কলারশিপ পাওয়ার যোগ্যতা

SCHOLARSHIP STUDENTIMESBD UPDATED BANK GOVT HIGHER EDUCATION

স্কলারশিপ নিয়ে উচ্চ শিক্ষার জন্য কিছু  শিক্ষার্থীরা উচ্চমাধ্যমিক শেষে বিদেশে পারি জমান আবার কিছু শিক্ষার্থীরা অনার্স শেষ করার পর আবেদন করেন।পূর্ব প্রস্তুতি নিয়ে আবেদন করলে স্কলারশিপ পাওয়া সহজ হয়তাই আবেদন করার পূর্বে  সকলের উচিত পূর্ব প্রস্তুতি গ্রহণ করে নেওয়া। যারা অনার্স শেষ করার পর স্কলারশিপ নিয়ে উচ্চ শিক্ষা লাভ করতে চান  তাদের স্কলারশিপ পাওয়ার কিছু যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা থাকার  প্রয়োজন হয়
সে ক্ষেত্রে যে কয়েকটি অভিজ্ঞতা অর্জনের উপর খেয়াল রাখতে হবে তা হলো  :-

গবেষণা নিবন্ধন প্রকাশ

মাস্টার্স/ পিএইচডি স্কলারশিপ পাওয়ার যোগ্যতার মাঝে অন্যতম হলো গবেষণা নিবন্ধন প্রকাশ। বিদেশের যে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্স/ পিএইচডি পর্যায়ে পড়াশোনা ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক পর্যায়ে শিক্ষার্থীর গবেষণা ও নিবন্ধের প্রতি  গুরুত্ব দেওয়া হয়। আপনি যে বিষয়টি নিয়ে পড়াশোনা করছেন তার  উপর গবেষণা নিবন্ধন  আন্তর্জাতিক বিভিন্ন জার্নালে প্রকাশ করার চেষ্টা করবেন। মানসম্মত গবেষণা নিবন্ধন প্রকাশের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কাছ থেকে পরামর্শ নিতে পারেন।

চাকরির অভিজ্ঞতা

স্কলারশিপ নিয়ে যে বিষয়ে পড়াশোনা করতে চান সে সেক্টরে ইন্টার্নশিপ বা চাকরি পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকলে আপনার স্কলারশিপ পেতে অন্যদের থেকে এগিয়ে রাখতে সহায়তা করবে।
এর জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের থাকাকালীন এসকল কাজর অভিজ্ঞতা নিয়ে রাখার চেষ্টা করবেন।

বিশ্ববিদ্যালয় বা শিক্ষকের সাথে যোগাযোগ

মাস্টার্স বা পিএইচডি স্কলারশিপ পর্যায়ের আবেদন সাধারণত বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট দিয়ে করতে হয়।
এ ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সাথে যোগাযোগ করে বৃত্তির জন্য আবেদন করা যায়। প্রতিবছর বিভিন্ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানে বিভিন্নভাবে শিক্ষার্থীদের জন্য স্কলারশিপের প্রস্তাব আসে   শিক্ষকদের কাছে।
এর জন্য  আগে থেকে যোগাযোগের মাধ্যমে সেই অধ্যাপকের মাধ্যমে স্কলারশিপ পাওয়া যায়।

সুপারিশপত্র

স্কলারশিপের জন্য আবেদনের সময় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে সুপারিশপত্র জমা দিতে হয়।  স্নাতকোত্তর বা পিএইচডির স্কলারশিপের জন্য আবেদনের সময় আপনি যে বিশ্ববিদ্যালয় পড়াশোনা করেছেন সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক বা যার অধীনে পিএইচডি গবেষণা করেছেন তার কাছ থেকে সুপারিশপত্র নিয়ে জমা দিতে হবে। সুপারিশকারীর আপনার দক্ষতা সম্পর্কে ভালো ধারণা আছে এসব লিখলে আপনি এগিয়ে থাকবেন।

গবেষণার  প্রস্তাব

বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন পড়বেন বা কোন বিষয়ে আপনি গবেষণা করার জন্য স্কলারশিপ চান সে সম্পর্কে জানতে চাওয়া হয়।সে ক্ষেত্রে অন্যেরটা অনুকরণ করে জমা দেওয়া থেকে বিরত থাকবেন। আপনার নিজের লক্ষ্য, কোন বিষয়ে পড়াশোনা করতে ইচ্ছুক, নিজের উদ্ভাবনী ধারণা নিয়ে লিখুন।

ভাষা দক্ষতার সাটিফিকেট

স্কলারশিপ পাওয়ার যোগ্যতার মাঝে ভাষা দক্ষতা অন্যতম।ভাষা দক্ষতা প্রমাণের জন্য বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে আইইএলটিএস ও টোফেল স্কোরকে গুরুত্ব দেওয়া হয়।
তাই স্কলারশিপের জন্য আবেদনের পূর্বে ইংরেজি ভাষার উপর যথেষ্ট দক্ষতা অর্জনের চেষ্টা করতে হবে। আইইএলটিএস ও টোফেল পরীক্ষায় ভাল একটি স্কোর থাকলে আবেদনের সময় তা আপনাকে  এগিয়ে রাখতে সাহায্য করবে।যে সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজিতে পড়ানো হয় ঐ সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদনের জন্য আইইএলটিএস স্কোর বাধ্যতামূলক।

জিআরই,জিম্যাট স্কোর

ইউরোপ, আমেরিকার বিশ্ববিদ্যালয় সহ বেশ কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে জিআরই,জিম্যাট স্কোরকে বেশ গুরুত্ব দেওয়া হয়।স্নাতকোত্তর বা পিএইচডি পর্যায়ের স্কলারশিপের আবেদনের জন্য জিআরই/ জিম্যাট স্কোর খুবই  গুরুত্বপূর্ণ

এ ছাড়াও যে সকল বিষয়ের প্রতি লক্ষ্য রাখতে হবে…

আবেদন ফি

স্কলারশিপেরজন্যঅনেক বিশ্বিবদ্যালয়ে আবেদন ফি জমা দিতে হয়। আবেদন ফি জমা দেওয়ারজন্য  যেকোনো ব্যাংকেরআন্তর্জাতিকক্রেডিটকার্ডব্যবহার করতে পারবে।

মার্কশীট বা নম্বরপত্র

কিছু কিছু বিশ্ববিদ্যালয় আছে যে সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্কলারশিপের জন্য আবেদনের সময় নম্বর পত্র চাওয়া হয়।
তা জমা,দওয়ার সময় অবশ্যই ইংরেজি ভাষা বা তাদের উল্লেখযোগ্য ভাষায় রূপান্তর করে জমা দিতে হবে। আবেদন করার সময় তা ইমেইল করে বা আবেদন পত্রের সাথে সংযুক্ত করেও জমা দেওয়া যায়।

আবেদন করার  সময়ক্রম

বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন সেশনে আবেদন করার  সময়ক্রম রয়েছে। যেমন; ‘‘ফল সেমিস্টার’’ (আগস্ট থেকে), ‘‘স্প্রিং সেমিস্টার’’ (জানুয়ারি থেকে) এবং  ‘‘সামার সেমিস্টার’’ (মে থেকে) বিভিন্ন সময়ে আবেদন করা যায়। সাধারণত  আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের ফল জন্য  সেমিস্টারে আবেদন করতে হয়।

ওয়েবসাইটে নিয়মিত নজর রাখা

স্কলারশিপ নিয়ে যে বিশ্বিবদ্যালয়ে পড়াশোনা করার ইচ্ছা ঐ বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মিত আপডেটের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট ফলো করতে হবে। অনেক বিশ্বিবদ্যালয়ে ভর্তির জন্য অনলাইনে অনেক সেশন পরিচালনা করে এইগুলোও ফলো করতে পারেন।

⭕ উচ্চমাধ্যমিকের পর স্কলারশিপ পাওয়ার জন্য কী কী যোগ্যতা প্রয়োজ।

অস্ট্রেলিয়ায় ১০০% স্কলারশিপ কীভাবে পাওয়া যায়

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *