আমি বিজয় দেখেছি – এম আর আক্তার মুকুল বই রিভিউ (পর্যালোচনা) - Studenttimesbd

আমি বিজয় দেখেছি – এম আর আক্তার মুকুল বই রিভিউ (পর্যালোচনা)

 বইয়ের নাম: আমি বিজয় দেখেছি

লেখক: এম আর আক্তার মুকুল

ঘরণা : মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, আত্মজীবনী

মূল্য: ৩৭৫ টাকা

প্রকাশনী: অনন্যা

ব্যক্তিগত অনুযোগ: ৪.৮/৫.০০

আমি বিজয় দেখেছি বই পড়ে এই বইয়ের রিভিউ লিখতে বসে প্রথমেই যে লাইনটি মাথায় আসলো- আমি মহান  মুক্তিযুদ্ধ দেখিনি , কিন্তু এই বইটি পড়েছি। অল্প হলেও স্বাধীন বাংলাদেশের জম্ম হওয়ার ঘটনাকে জানতে পেরেছি। 

আমি সারাজীবন মুক্তিযুদ্ধকে বাইনারি ধরনের  শুধু স্বাধীকার প্রতিষ্ঠায় জীবনযুদ্ধে জাপিয়ে পড়া বাংলাদেশীদের সাথে হানাদার পাকিস্তানের যুদ্ধ ভেবেছিলাম। এই বই পড়ে বুঝতে পারলাম মহান মুক্তিযুদ্ধের ব্যাপারে আমার জ্ঞান কতটা তুচ্ছ। বইটাকে লেখক নিজের অভিজ্ঞতার সাথে রেফারেন্সসহ বিচিত্র তথ্যাবলী  অন্তর্ভুক্ত করে মহান মুক্তিযুদ্ধের  ছোটখাট  একটা বিশ্বকোষে পরিণত করেছেন।

বইটির লেখক এম আর মুকুল আর দশ পাচ টা বাঙালীঘরের  ছেলের মতো শিক্ষাজীবন বাড়ি থেকে পালিয়ে যাওয়া শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে রাজনৈতিক আন্দোলন এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের মতো ঘটনায়  বিচিত্র করে গড়ে তোলেছেন ।

 লেখক এম আর মুকুল  ছিলেন কোলকাতায় প্রবাসী সরকারের তথ্য ও প্রেস বিভাগের পরিচালক। এই পরিচয়ে না চিনলেও তিনি আমাদের কাছে সবচেয়ে বেশি পরিচিত স্বাধীন বাংলা  বেতার কেন্দ্রের চরমপত্রের পাঠক হিসেবে। বিখ্যাত পুরান ঢাকার আঞ্চলিক ভাষায় তার লেখা ও পঠিত চরমপত্র ছিল আগুনের দিনগুলোতে বাংলার অকুতুভয় দুর্জেয় সন্তানদের প্রেরণার অন্যতম বাতিঘর।

”এলায় কেমুন বুঝতাছ্যান?”

সরকারের তথ্য ও প্রেস বিভাগের পরিচালক  হওয়ায় প্রবাসী সরকারের  অন্দরমহল পর্যন্ত  প্রবেশে ছিলো তার  প্রশস্ত সুযোগ যা দিয়ে তিনি দেখেছেন আগুনের সেইসব দিনের সব ঘটনা।

 বইটি মূলত একাত্তরের ইতিহাসের উপরেও হলেও তিনি র্দৈঘ্য প্রস্তে তিনি তা সীমাবদ্ধ করে রাখে নি। ব্রিটিশ রাজের শাসনামলের শেষ থেকে  নব্বইএর দশকের টালমাটাল দিনের ইতিহাস লিপিবদ্ধ করেছেন।

সাথে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সংগঠনে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রায় সকল টানাপোড়ন অন্তর্ভূক্ত করেছেন।

অজানা সব ঘটনা যেমন টরোন্টো সম্মেলন , মাওলানা ভাসানীর জীবনী, কেন হানাদার বাহিনী বাঙালীদের হাতে সরাসরি আত্মসমর্পন করে নি, বাংলাদেশীদের আত্মমর্যাদায় বলিয়ান সি-ইন-সি ওসমান গনী , দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে মিলিটারি ক্রস পাওয়া  দুর্দর্ষ কমান্ডোর অধিনায়ক জমশেদ ও টাইগার নিয়াজী খ্যাত জেনারেল আমির আব্দুল্লাহ খান নিয়াজীকে লেজেগোবরে অবস্থা করে দেওয়া বঙ্গবীর টাইগার কাদের সিদ্দিকীর  অজানা সব তথ্য।

সাথে স্বাধীনতা-উত্তর বাংলাদেশের রাজনীতিকে নির্দেশ করা  বাম ,ডান ও আওয়ামীলীগের  উত্থান পতন বিকাশ ব্যাখ্যা করেছেন।

এছাড়াও বিশ্বরাজনীতি ও আঞ্চলিক রাজনীতি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে কিভাবে পরিচালিত করেছেন তার অনেক বিষয়ই উল্লেখ করার চেষ্টা করেছেন।

 সেই সাথে তিনি বাংলা সাহিত্যে মুক্তিযুদ্ধের লেখা বইয়ের স্বল্পতা নিয়ে যেমন দুঃখ প্রকাশ করেছেন ঠিক তেমনি তরুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের উপরে গবেষনা অনুপ্রানিত করতে কিছু চিন্তার খোরাক দিয়ে গেছেন এই বইয়ে।

মোটামোটি  মহান মুক্তিযুদ্ধের অনেক গুলো বিষয় নিয়ে তিনি বিতর্কের অবসান করলেও কিুছু কিছূ জায়গা যেমন শেখ মুজিবের সাথে তাজউদ্দীন আহমেদের সম্পর্কের অবনতির মতো কিছূ ঘটনা তিনি ইচ্ছাকৃত ভাবে বাদ না দিয়ে বিতর্কের অবসান করলে আমরা , মুক্তিযুদ্ধ না দেখা প্রজন্ম আরো ভালোভাবে আমাদের ইতিহাস নিয়ে সচেতন হতে পারতাম।

চরমপত্র- এম আর আক্তার মুকুল

বইটি সবাইকে পড়ার অনুরোধ করে এই রিভিউ শেষ করছি।

প্রিয় বাংলাদেশ  চিরন্জীন  হোক। –

আমি বিজয় দেখেছি – এম আর আক্তার মুকুল PDF Download

আমি বিজয় দেখেছি – এম আর আক্তার মুকুল Hard Copy

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *