গুচ্ছ বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা অনলাইন আবেদন ২০২১ guccho University admission application online 2021

গুচ্ছ বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা আবেদন ২০২১ guccho University admission application online 2021

university admission exam 2021 latest notice result circular application
 university admission exam 2021

 এই বছর প্রচলিত পদ্ধতির  ভিন্ন পদ্ধতিতে হবে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা। এই বছর এসএসসি এবং জেএসসি পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে এইসএসসি পরীক্ষার ফলাফল নির্ধারণ করায় ১০০% পাশের সাথে রয়েছে রেকর্ড সংখ্যক জিপিএ পাচ প্রাপ্ত শিক্ষার্থী।  ফলে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় সৃষ্টি হয়েছে নতুন চ্যালেঞ্জ। এর  পরীপেক্ষিতে  নতুন পদ্ধতিতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ভর্তি পরীক্ষা আয়োজনের ব্যাপারে প্রয়োজনীয়ো ব্যবস্থা নিচ্ছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

সর্বশেষ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, এই বছর   গুচ্ছ পদ্ধতিতে মোট ৪ লাখ শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিতে পারবে।  এই পদ্ধতিতে প্রতিটি বিভাগে প্রায়  ১ লাখ ৩০ হাজার শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিতে পারবে বলে আমাদের জানানো হয়েছে। এই বছর ২০টি সাধারন  এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মোট ২৩ হাজার ১০৪ জন শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পাবে।    এই ব্যাপারে গুচ্ছ পদ্ধতিতে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা আয়োজক কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন জানান, ধারন ক্ষমতার বাইরে পরীক্ষা আয়োজন সম্ভব নয় বলে  বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর ধারন ক্ষমতা বিবেচনায় এনে পরীক্ষা নিতে হবে, যার ফলে  গুচ্ছ পদ্ধতিতে একদিনে ২০ টি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রায় ১ লাখ  ৩০ হাজার এবং তিন বিভাগে প্রায় ৪লাখ শিক্ষার্থীর পরীক্ষা নেওয়া হতে পারে। 

 

নতুন এত পদ্ধতিতে

প্রচলিত নির্ধারিত ফলাফল ধারী সবাই পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে পারবে।

প্রথম ধাপে পরীক্ষায় নির্বাচিত শিক্ষার্থীরা চুড়ান্ত পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে পারবে।

এই বছর পরীক্ষা  হবে এমসিকিউ পদ্ধতিতে হবে। প্রতিটি ভুল উত্তরে ০.২৫ নাম্বার কাটা যাবে।

মনোনীত শিক্ষার্থীদের এসএমএসের মাধ্যমে ফলাফল জানিয়ে দেওয়া  হবে।

প্রথম ধাপে পরীক্ষায় অংশগ্রহনে কোনো ফি দিতে  হবে না

চূড়ান্ত ধাপে আবেদন ফি ৫০০ টাকা।

একটি মাত্র পরীক্ষা হবে এবং পরীক্ষা থেকে মনোনীত শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্কুলার অনুযায়ী আবেদন করার সুযোগ পাবে । কিন্তু কিভাবে ভর্তি করা হবে তা বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ব্যাপার।

এই বছর আবেদনের যোগ্যতা কিছুটা শিথিল হতে পারে। বিজ্ঞান বিভাগে চতুর্থবিষয়সহ সর্বনিম্ম জিপিএ ৭, ব্যবসা বিভাগে চতুর্থবিভাগসহ সর্বনিম্ম  জিপিএ ৭.৫ এবং মানবিক বিভাগে চতুর্থবিভাগসহ সর্বনিম্ম জিপিএ৭ থাকতে হবে।

এই বছর  বিভাগ পরিবর্তন বিভাগ নিয়ে কোনো সিগ্ধান্ত না হলেও অতিদ্রুত বিভাগ পরিবর্তন বিভাগ বাতিল  হতে পারে।

মানবণ্টণ

বিজ্ঞান: পদার্থ বিজ্ঞান বিষয়ে ২০ নম্বর, রসায়ন বিষয়ে২০, জীববিজ্ঞান, গণিত এবং আইসিটি বিষয়ক  মিলে ৪০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে। জীববিজ্ঞান, ICT ও গণিতের মধ্যে যে কোনো দুটি বিষয়ের উত্তর দিতে হবে। আর বাংলা ও ইংরেজি বিষয়ে ১০ নম্বর করে সর্বমোট ২০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে পারে।

বাণিজ্য: হিসাববিজ্ঞান বিষয়ে ২৫ নম্বর, বিজনেস অর্গানাইজেশন ও ম্যানেজমেন্টে ২৫, আইসিটিতে ২৫, বাংলায় ১৩ এবং ইংরেজি বিষয়ে ১২ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে।

মানবিক: বাংলায় ৪০, ইংরেজিতে ৩৫ এবং ICT বিষয়ে ২৫ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *